রাজশাহীতে জামায়াতের জুম মিটিং চলাকালে আটক-৩, পুলিশ বলছে নাশকতার পরিকল্পনা

রাজশাহী মহানগরী জামায়াতের জুমে মিটিং চলাকালে এক রুকনসহ তিন শিবির কর্মি কে আটক করেছে পুলিশ, এসময় আরো দশ থেকে বারোজন পালিয়ে যায়।পুলিশের দাবি নাশকতার পরিকল্পনা করছিলো তারা।

পুলিশ বলছে নাশকতার পরিকল্পনা কালে তাদের কাছ থেকে জুম মিটিংয়ের প্রযুক্তি সরঞ্জামাদি, জিহাদি বই, সংগঠনের ব্যানার, চাঁদার ক্যাশ রেজিস্টার ও কয়েকটি দেশি অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

শনিবার ভোরের দিকে নগরীর কয়েরদাঁড়া মহল্লার জামায়াত নেতা শেখ রবিউল ইসলামের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে সংশ্লিষ্টদের গ্রেফতার ও সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়।

রোববার সকালে রাজশাহী মহানগর পুলিশের গণমাধ্যম শাখা থেকে এ বিষয়ে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো— ১৬নং ওয়ার্ড জামায়াতের রুকন রবিউল ইসলাম শেখ (৪০), দরগাপাড়ার আব্দুর রশিদের ছেলে শিবিরকর্মী পারভেজ রশিদ (২২) ও মতিহার থানার নতুন বুধপাড়া মহল্লার সিরাজুল ইসলামের ছেলে শিবিরকর্মী হাবিব ইসলাম (২৭)।

আরএমপির গণমাধ্যম শাখা সূত্রে জানা গেছে, শনিবার ভোরের দিকে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মনের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল জামায়াত নেতা রবিউল ইসলাম শেখের বাড়িতে অভিযান চালায়।

অভিযানকালে জামায়াত নেতাসহ তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়। ঘটনার সময় তারা জুমে সাংগঠনিক সভা করছিল। যাতে দেশবিরোধী আলোচনা ও নাশকতার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছিল বলে পুলিশের দাবি। অভিযানকালে উপস্থিত আরও ১০-১২ জন পালিয়ে যেতে সক্ষম হয় যাদের গ্রেফতার পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছেন।

বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মণ জানান, গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে একাধিক নাশকতার মামলা রয়েছে বিভিন্ন থানায়। তাদের কাছ থেকে ট্যাব, জামায়াত ও ছাত্রশিবিরের সাংগঠনিক কার্যক্রমের বিভিন্ন রেকর্ডপত্র, জিহাদি বই, সংগঠনের  ব্যানার, চাঁদা আদায়ের ক্যাশ রেজিস্টার ও দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রসহ অন্যান্য সামগ্রী উদ্ধার হয়।

রোববার সকালে তাদের বিরুদ্ধে নতুন মামলা দায়ের ও পুরনো মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে চালান করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *