ইউটিউবে আজহারী ইতিহাস গড়লেন, কোন ভিডিও ছাড়াই একলক্ষ চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার

যুক্তিকে ভাসিয়ে নিয়ে যায় আবেগ। মিজানুর রহমান আজহারীর জনপ্রিয়তার জোয়ার তারই প্রমাণ। রেকর্ড গড়ার বিষয়টি অবশ্য ইসলমিক বক্তা হিসেবে আজহারীর জন্য নতুন কোনো আহামরি বিষয়ও নয়। দিনের বেলায় ওয়াজ ও তার আগমনের সংবাদ শুনে লক্ষ লক্ষ মানুষের সমাগম ঘটিয়ে যে ইতিহাস গড়েছিলেন সেটাকে ছাপিয়ে সোশাল মিডিয়ায় ইউটিউবে কোন ভিডিও ছাড়াই মাত্র ১৬ ঘন্টায় সাবস্ক্রাইবার একলক্ষ ছাড়িয়েছে। সোশাল মিডিয়ায় এমন আচমকা জনপ্রিয়তার প্রমান দিয়ে ইতিহাসের পাতায় নাম লেখালেন এই ইসলামিক স্কলার।

 

বাংলাদেশের জনপ্রিয় ইসলামিক বক্তা মিজানুর রহমান আজহারী। দেশে গত কয়েক বছর ওয়াজ মাহফিল করে অসংখ্য অনুসারী তৈরি করেছেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও তার অনুসারীর সংখ্যা প্রায় ৪০ লাখ। বর্তমানে মালয়েশিয়ায় অবস্থান করছেন এই আলেম। তবে সেখান থেকেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ধর্মীয় বিভিন্ন পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন বার বার।

ইউটিউবে ধর্মীয় পরামর্শ দেয়ার লক্ষ্যে চ্যানেল করলেন মিজানুর রহমান আজহারী। ফেসবুকে চ্যানেলটি সম্পর্কে পোস্ট দেয়ার মাত্র ১৬ ঘন্টায় সাবস্ক্রাইবার একলক্ষ ছাড়িয়েছে। চ্যালেনটি ওপেন করার আগে তিনি অবশ্য অনুসারীদের থেকে পরামর্শ নিয়েছিলেন। ফেসবুক পোস্টে সে কথা জানিয়েছেন তিনি নিজেই।

মিজানুর রহমান আজহারী পোস্টে লেখেন, আলহামদুলিল্লাহ.. অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেল সংক্রান্ত আমার গত স্ট্যাটাসটিতে ষাট হাজারেরও বেশী কমেন্টস এসেছে। আমি উল্লেখযোগ্য প্রায় সবগুলো কমেন্টসই পড়ার চেষ্টা করেছি। সুবহান আল্লাহ! আপনাদের চমৎকার ও কন্স্ট্রাক্টিভ পরামর্শগুলো আমায় আবেগাপ্লুত করেছে। অসাধারণ এই পরামর্শগুলোর জন্য আন্তরিক শুকরিয়া। আল্লাহ তায়ালা আপনাদের সবাইকে উত্তম বিনিময় দিন। আপনাদের দেয়া সুন্দর পরামর্শগুলো আমরা মাথায় রাখার চেষ্টা করব ইনশাআল্লাহ।

আবেগের বশবতী হয়ে, নাকি বিবেকের তাঁড়না থেকে! এই নিয়ে বিস্তর আলোচনা হতে পারে। তবে তার অনুসারী যে বহুত বড়েছে তা বলাই যায়। জানিনা আমাদের সমাজের গতিপথ কোন দিকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *