ফের হিজাব পরার অনুমতি পেল নাইজেরিয়ার শিক্ষার্থীরা

পুনরায় হিজাব ব্যবহারের অনুমোদন পেল নাইজেরিয়ার কাভারা প্রদেশের শিক্ষার্থীরা। কাভারা প্রদেশের গভর্নরের নির্দেশ মোতাবেক এখন থেকে এই প্রদেশের শিক্ষার্থীরা হিজাব ব্যবহার করে ক্লাসে উপস্থিত হতে পারবে।

নাইজেরিয়ার পশ্চিমাঞ্চলীয় কাভারা প্রদেশে রাজধানী ইলুরিনে মুসলিম শিক্ষার্থীদের হিজাব পরা নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়। কাভারা প্রদেশের গভর্নর গত শুক্রবার হিজাব ব্যবহার নিয়ে বিতর্কের জের ধরে রাজ্যের রাজধানী ইলুরিনের ১০টি উচ্চ বিদ্যালয় অস্থায়ীভাবে বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছিল। এই সব স্কুল সোমবার থেকে আবারও খোলা হবে বলে জানান তিনি।

কাভারা প্রদেশের গভর্নর একটি বিবৃতি স্কুলসমূহে ধর্মীয় স্বাধীনতার প্রয়োজনীয়তার উপর গুরুত্বারোপ করে বলেছেন, রাজ্য সরকার ঘোষণা করেছেনে যে-
‘হিজাব ইস্যুতে কোনও বিজয়ী বা পরাজয়কারী নেই। রাজ্য গভর্নর উভয় ধর্মকে (খ্রিস্টান ও মুসলমান), বিশেষত নেতা, বিশেষজ্ঞ এবং মিডিয়া ব্যক্তিত্বকে তাদের কর্ম ও বক্তব্যের দায়বদ্ধতার সঙ্গে একত্রে শান্তিপূর্ণভাবে বাস করতে উত্সাহিত করছে।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ‘গভর্নর উভয় পক্ষের ধর্মীয় নেতা ও বিশেষজ্ঞদের ধৈর্য ধারণ এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশ ও পরিস্থিতি নিয়ে আসার জন্য প্রশংসা করেছেন।

উল্লেখ্য, নাইজেরিয়া কাভারা প্রদেশের ইলুরিন অঞ্চল দেশটির পশ্চিমে বেনিনের সীমান্তে অবস্থিত। এ অঞ্চলটি মুসলিম অধ্যুষিত। এ অঞ্চলে জোরপূর্বক হিজাব পরতে শিক্ষার্থীদের ওপর চাপ প্রয়োগ করায় পরিস্থিতি অশান্ত হয়ে উঠেছিল।

এদিকে কাভারার ইসলামী অধিকার রক্ষাকারী সংগঠনের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছিল, তারা এই লড়াইয়ে আত্মসমর্পণ করবে না তবে নারী মুসলিম শিক্ষার্থীরা যাতে তাদের হিজাব ব্যবহার করে তা নিশ্চিত করার জন্য প্রয়োজনীয় সব সাংবিধানিক পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *