পাক-ভারতের অভ্যন্তরীণ সমস্যা নিয়ে মুখ খুলল তালেবান

গত ১৫ আগস্ট রাজধানী কাবুল দখলের মাধ্যমে দীর্ঘ ২০ বছর পর আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে তালেবান। সরকার প্রতিষ্ঠা তাদের এখন সময়ের ব্যাপার। এই পরিস্থিতিতে ভারত-পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ সমস্যা নিয়ে মুখ খুলল তালেবান।

তালেবান নেতা শের মোহাম্মদ আব্বাস স্টানিকজাই বলেন, ভারত ও পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ লড়াইয়ে আফগানিস্তানকে টেনে আনা উচিত হবে না। তাদের অভ্যন্তরীণ সমস্যা সংশ্লিষ্ট দেশ দু’টিই মেটাবে। সেখানে আফগানিস্তান ঢুকবে না।

এক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে স্টানিকজাই জানান, প্রতিবেশীদের সাথে ভালো সম্পর্ক রাখতে চায় তালেবান।

তালেবানের সম্ভাব্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্টানিকজাই বলেন, ভারত আমাদের অনেক সাহায্য করেছে। আফগানিস্তানে অনেক উন্নয়ন করেছে তারা। এগুলি আমাদের দেশের সম্পদ। আমাদের আশা, আগামী দিনেও আফগানিস্তানের উন্নয়নে সাহায্য করবে ভারত।

তিনি আরও বলেন, ভারত থেকে কেউ সেখানে গেলে তাদের সুরক্ষা নিশ্চিত করা হবে। কাবুলে এখনও আটকে থাকা হিন্দু ও শিখদের দেশ ছাড়তে হবে না বলেও পরামর্শ দেন তিনি। তার কথায়, এটা তো তাদেরই দেশ। তারা কেন দেশ ছাড়বেন। তাদের কোনও ভয় নেই।

তিনি জানান, ২০ বছর ধরে আফগানিস্তানে আমেরিকা ও ন্যাটো বাহিনী থাকলেও তালেবান সরকার তাদের সঙ্গেও ভাল সম্পর্ক রাখতে চায়। ভারত, পাকিস্তান, ইরান, তাজিকিস্তানের মতো দেশের সঙ্গেও তারা ভাল সম্পর্ক রাখায় আগ্রহী।

বিভিন্ন মহল থেকে আশঙ্কা প্রকাশ করা হচ্ছে, আফগানিস্তানে তালেবান সরকার গড়লে আরও একবার সন্ত্রাসী সংগঠনগুলি আফগানিস্তানের জমি ব্যবহার করে নাশকতা ছড়াবে। সেই আশঙ্কাও উড়িয়ে দিয়েছেন শের মোহাম্মদ আব্বাস স্টানিকজাই। তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, তাদের দেশের মাটি যাতে সন্ত্রাসী ব্যবহার করতে না পারে সে দিকে খেয়াল রাখবেন তারা।

এর আগে তালেবান জানিয়েছিল আফগানিস্তানে চলমাল ভারতের প্রকল্প নিয়ে তাদের কোনো সমস্যা নেই।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *