দোকানে ঢুকে ফিলিস্তিনি শিশুর চোখে গুলি করেছে ইসরাইলি সেনারা

দোকানে ঢুকে ফিলিস্তিনি শিশুর চোখে গুলি ইসরাইলি সেনার

সম্প্রতি ইসরাইলি সেনাদের বর্বরতা অতিতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে যাচ্ছে।

ফিলিস্তিনের প্রাচীন শহর হেবরনে একটি দোকানে ঢুকে নিরপরাধ এক শিশুর চোখে গুলি করে তাকে অন্ধ করে দিয়েছে ইসরাইলি সেনারা।খবর আরব নিউজের।

ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, ইজ্জ আল-দিন নাদাল বাতাশ নামে ১৪ বছর বয়সী ফিলিস্তিনি ওই শিশুটি তার ১৩ বছর বয়সী চাচাত ভাইকে নিয়ে হেবরনের এবটি দোকানে অবস্থান করছিল।

এ সময় ইসরাইলি সেনারা সেখানে ঢুকে কোনো কারণ ছাড়াই বাতাশের চোখে গুলি করে।সঙ্গে সঙ্গে তাকে হেবরনের একটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা জেরুজালেমে বড় কোন হাসপাতালে নিয়ে ভর্তির পরামর্শ দেন।

মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে জেরুজালেম চক্ষু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ফিলিস্তিনি এ শিশুটি এ যাত্রায় প্রাণে বেঁচে গেলেও আর কখনো চোখে কিছু দেখতে পারবে না।

ইজ্জ আল-দিন নাদাল বাতাশার বাবা আবদুল করিম আল-বাতাশ বলেন, ইসরাইলের একদল সেনা হেবরনে টহল দেয়ার সময় শিশুদের আটক করতে চাইলে তারা পাথর নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায়।

এ সময় উত্তেজিত সেনারা আদালুসিয়া মার্কেটের ওই দোকানটিতে গত শুক্রবার কেনাকাটা করতে যাওয়া তার ছেলের চোখে গুলি করে।

তিনি বলেন, আমার ছেলে তাদের সঙ্গে কোনো সংঘর্ষে জড়ায়নি। সে তার চাচাতো ভাইকে নিয়ে দোকানে কেনাকাটার জন্য এসেছিল।

 

সম্প্রতি ফিলিস্তিনি শিশুদের গুলি করে হত্যা, গ্রেফতার ও নির্যাতনের বহু অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে ইসরাইলি সেনাদের বিরুদ্ধে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *