আর্থিক অনটনে ছেলেকে খুন করে বাবা-মায়ের আত্মহত্যা

করোনাকালে চরম আর্থিক অনটনে ছেলেকে খুন করে আত্মহত্যা করেছেন বাবা ও মা। শুক্রবার ভারতের উত্তর ২৪ পরগনার সোদপুরে এ ঘটনা ঘটে।

রাজ্য পুলিশ মরদেহ গুলো উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠিয়েছে। পুলিশের ধারণা, আর্থিক অনটনে ছেলেকে খুন করে আত্মঘাতী হয়েছেন দম্পতি।

জানা যায়, করোনার জেরে গত বছরে একটানা লকডাউনে বিপুল আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হন সোদপুরের বসাক বাগানের বাসিন্দা সমীর গুহ। পরে লকডাউন উঠলেও ব্যবসায় মন্দা কাটেনি। এবছর করোনার সেকেন্ড ওয়েভ আছড়ে পড়তেই ফের রাজ্যে কড়াকড়ি।

বাজার থেকে ব্যবসার টাকাই ঘরে তুলতে পারছিলেন না সমীর গুহ। টাকা না থাকায় সংসারের খরচও জোগাতে পারছিলেন না তিনি। টাকার জোগাড়ে হন্যে হয়ে ঘুরলেও লাভ হয়নি। পরিচিতদের অনেকেরই একই দশা। টাকার অভাবে একদিকে যেমন ব্যবসা কার্যত বন্ধ হয়ে গিয়েছিল তেমনি সংসারের খরচ চালাতেও পারছিলেন না সমীর।

শুক্রবার সকালে গুহ’র বাড়ি থেকে দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় বাসিন্দারা পুলিশে খবর দেন। পুলিশ এসে বাড়ির দরজা ভেঙে সমীর গুহ ও তার স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধার করেন। এসময় দম্পতির ছেলেরও মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, সন্তানকে খুনের পর দম্পতি আত্মঘাতী হয়েছেন। তবে এই মৃত্যুর পেছনে অন্য কোনো ঘটনা আছে কিনা তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *